আপনারা সাদা চুলওয়ালা বুড়াদের দিকে তাকিয়ে থাকবেন না: জয়

0
51

বাংলাদেশের তরুণদের উদ্দেশে আশাবাদ ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, আপনারা অন্যদের দিকে হাত পেতে রাখবেন না।  শুধু সাদা চুলওয়ালা বুড়াদের প্রতি তাকিয়ে থাকবেন না যে, তারা কী বলে? দেশের সমস্যা সমাধান করতে নেমে যান।

তিনি বলেন, আপনাদের মেধা আছে, আমাদের দেশের মানুষের মেধা আছে।  আমরা আমাদের নিজের মেধা দিয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।

মঙ্গলবার জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড-২০২০ -এর ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জয় বলেন, ‘আমার বয়স নিয়ে অনেকে ভুল করে। আমার বয়স নিয়ে ভুল করার কারণ নাই। আমার জন্ম হয়েছে স্বাধীনতা যুদ্ধের মাঝে। সিআরআইও কিন্তু ভুল করেছে আমার জন্মদিন নিয়ে।’

প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় আরও বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আমরা এখন ভার্চুয়ালি রাষ্ট্র পরিচালনা করছি।  ডিজিটাল বাংলাদেশ না থাকলে এটা সম্ভব হতো না। ডিজিটাল বাংলাদেশ না হলে এখন বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে ভেঙে পড়তো।

তিনি বলেন, আমরা এখন খুব আনন্দিত যে, ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের নিজস্ব পরিকল্পনায় করেছি।  এজন্য বাইরের কারও সহযোগিতা নিতে হয়নি। বাইরের কেউ আমাদের করে দেয়নি।

প্রধানমন্ত্রী পুত্র জয় বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে মার্চ থেকে আমি দেশে আসতে পারছি না। এখন আমরা ভার্চুয়ালি রাষ্ট্র পরিচালনা করছি।

জয় বলেন, আমরা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশের ভিশনটা তৈরি করি। এটাকে ১০ বছর ধরে বাস্তবায়ন করি। এটাকে নিয়ে অনেকেই হাসাহাসি করেছে, টিটকারি করেছে যে, ডিজিটাল বাংলাদেশ কী?  সেটার লাভ আমরা আজকে পাচ্ছি।  এই বছরে পাচ্ছি।

কোভিড ১৯ হোক, যাইহোক, আমাদের কোনো সমস্যা নাই। আমরা দেশের কাজ চালিয়ে যাব। ডিজিটাল বাংলাদেশ কিন্তু আমরা বাঙালি, আমরা নিজেরাই বাস্তবায়ন করেছি। এটা কিন্তু কোনো বিদেশি কনসালটেন্ট কোম্পানি থেকে এসে, বিশ্বব্যাংক থেকে বাস্তবায়ন করেনি। এটা সম্পূর্ণ পরিকল্পনা, সম্পূর্ণ প্ল্যানিং, সম্পূর্ণ এমপ্লিমেনটেশন আমাদের নিজস্ব।
আমাদের চিন্তাধারায় করা, আমাদের নিজস্ব বাস্তবায়ন। আমরাই করেছি। আমরাই পারি। আমরাই করব।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল তিনটি প্রিন্সিপাল (মূলনীতির) ওপর। গণতন্ত্রের ওপর, মানুষের ভোটের ওপর, দেশের মানুষ নিশ্চিত করবে বাংলাদেশের নেতৃত্বে কে? বাংলাদেশ কোনদিকে যাবে?

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র গঠনের জন্য সংগ্রাম করেছেন। আমাদের রাষ্ট্রের তিনটি প্রিন্সিপাল (মূলনীতি)  সবাইকে ধরে রাখতে হবে।  এখানে হিন্দু, বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান, নাস্তিক সবার অধিকার আছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে