একদিনে সড়কে ঝড়ল ২৩ প্রাণ

0
69

অনলাইন ডেস্ক: দেশের বিভিন্ন সড়কে আবার শুরু হয়েছে মৃত্যুর মিছিল। সোমবার একদিনে দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় নারী-শিশুসহ মারা গেছেন ২৩ জন। এরমধ্যে একটি দুর্ঘটনা ঘটেছে বাস-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে। দুটি দুর্ঘটনা কুয়াশাজনিত কারণে হয়েছে। আর একটি দুর্ঘটনা ঘটেছে সড়ক পারাপার হতে গিয়ে। একটি ঘটেছে ট্রেনের সামনে ট্রাক্টর পড়ে। বাকি দুর্ঘটনাগুলো ঘটেছে বিভিন্ন পরিবহনের সংঘর্ষে।

সোমবার দেশের বিভিন্ন জেলায় ঘটা দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি মারা গেছে হবিগঞ্জে। এখানে প্রাণ হারিয়েছেন আটজন। এছাড়া গাজীপুরে পৃথক দুটি দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহীসহ তিনজন, বরিশালে মোটরসাইকেলের সঙ্গে টেম্পোর সংঘর্ষে একজন, দিনাজপুরে বালুবোঝাই ট্রলির ধাক্কায় এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রেনের ধাক্কায় মারা গেছেন একজন, টাঙ্গাইলে বাসের ধাক্কায় একজন, কুষ্টিয়ায় ট্রাকের ধাক্কায় এক মোটরসাইকেল আরোহী, ভোলায় বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে দুজন, মুন্সীগঞ্জে পিকআপ চাপায় দুজন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে পিকআপভ্যানের চাপায় এক নারী স্বাস্থ্য সহকারী, নোয়াখালীর হাতিয়ায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় একজন এবং বগুড়ায় ভটভটি উল্টে একজনের প্রাণ গেছে।

হবিগঞ্জ: জেলার নবীগঞ্জ উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বাস ও দুটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ আটজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১০ জন। নিহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী বলে জানা গেছে।

সোমবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের ফুলতলী বাজারের কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- গজনাইপুর ইউনিয়নের মুড়াউরা গ্রামের আবু তাহের স্ত্রী সামিরুন বেগম (২৮), তার মেয়ে মারিয়া আক্তার (২), আবু তাহেরের ভাই আনু মিয়ার স্ত্রী হালিমা বেগম (২৫), সাতাইহাল গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে অন্তর মিয়া (২২), সাতাইহাল (কাজীপাড়া) গ্রামের লিজা আক্তার (১৯), দেবপাড়া ইউনিয়নের লতিবপুর গ্রামের কিতাব আলী (৩০)। বাকি দুজনের পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কুমিল্লা থেকে সিলেটগামী বিআরটিসি পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৫৫১৮) সঙ্গে আউশকান্দি থেকে পানিউমদাগামী যাত্রীবাহী সিএনজি (হবিগঞ্জ-থ ১১-৬৭৭৭) ও অজ্ঞাত সিএনজিসহ দুটি সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দুটি সিএনজি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। একটি সিএনজিসহ বাস মহাসড়কের পার্শ্ববর্তী গভীর খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই সাতজনের মৃত্যু হয়। পরে আরও একজন মারা যান।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: জেলার নাচোলে রেললাইনে আটকে পড়া একটি ট্রাক্টরে ট্রেনের ধাক্কায় প্রাণ হারিয়েছেন নাসির উদ্দিন নামে একজন। তিনি ট্রাক্টরটির চালক। সোমবার বেলা ১১টার দিকে নাচোল উপজেলার যাদুপুর রেলক্রসিং এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন আমনুরা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সোহেল রানা।

নিহত নাসির উদ্দিন গোমস্তাপুর উপজেলার চৌডালা ইউনিয়নের উদয়নগর গ্রামের বকুলের ছেলে। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে এএসআই সোহেল রানা জানান, বেলা ১১টার দিকে নাচোলের যাদুপুর রেলক্রসিং পার হতে গিয়ে ট্রাক্টরটি রেললাইনে আটকে যায়। ঈশ্বরদী থেকে ছেড়ে আসা রহনপুরগামী একটি কমিউটার ট্রেন ট্রাক্টরটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রাক্টরের ইঞ্জিন ট্রেনের ইঞ্জিনের নিচে ঢুকে যায় এবং ট্রেনের চাকায় দ্বিখণ্ডিত হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায় ট্রাক্টর চালক নাসির। খবর পেয়ে রেলওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নাসিরের মরদেহ উদ্ধার করে।

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলে বাসের ধাক্কায় সুমন নামে একজন অটোরিকশা চালক নিহত হয়েছেন। সোমবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের কালিহাতী উপজেলার শল্লা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিষয়টি বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ওসি কাজী আইয়ুবুর রহমান নিশ্চিত করেছেন। নিহত সুমন কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়া বাড়ি এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে।

ওসি কাজী আইয়ুবুর রহমান জানান, কালিহাতী উপজেলার শল্লা এলাকায় ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে টাঙ্গাইলগামী বাস ও অটোরিকশার ধাক্কা লাগে। এতে অটোরিকশার চালক সুমন গুরুতর আহত হন। পরে তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান। চালক পালিয়ে গেলেও বাসটি আটক করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

কুষ্টিয়া: জেলার দৌলতপুর উপজেলার কল্যাণপুর এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় সুজন আলী (২৫) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। তিনি উপজেলার বৈরাগীরচর গ্রামের হামিদুল সর্দারের ছেলে। সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে সুজন মোটরসাইকেলযোগে কুষ্টিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন। কুষ্টিয়ার প্রাগপুর সড়কের কল্যাণপুর বটতলা এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা বালুবাহী (মৌলভীবাজার ট-১১-০০২৮) ট্রাকের ধাক্কায় সুজন উল্টে পড়ে যান।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দৌলতপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। এ সময় ট্রাকচালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। স্থানীয়দের ধারণা ঘন কুয়াশার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। দৌলতপুর থানার ওসি (তদন্ত) শাহাদত হোসেন জানান, খবর পেয়ে ট্রাকটি আটক করা হয়েছে।

ভোলা: ভোলায় যাত্রীবাহী বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ দুজন নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও চারজন। উত্তেজিত জনতা সড়ক অবরোধ করে বাসটি ভাঙচুর করে তাতে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সোমবার সকাল ১০টার দিকে ভোলা-লক্ষ্মীপুর মহাসড়কের ব্যারিস্টারের কাচারি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে ভোলা বাস মালিক সমিতির একটি যাত্রীবাহী বাস চরফ্যাশন থেকে ভোলার ইলিশা ফেরিঘাটে যাচ্ছিল। ভোলা-লক্ষ্মীপুর মহাসড়কের ভোলা অংশের ইলিশা ব্যারিস্টারের কাচারি এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা অটোরিকশার সঙ্গে বাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাজহারুল ইসলাম জসিমসহ (৪৫) দুজন নিহত হন।

মুন্সীগঞ্জ: জেলার গজারিয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পিকআপভ্যানের চাপায় মোহন মিয়া (৫০) ও নুরুল ইসলাম (৭০) নামে দুই পথচারী নিহত হয়েছেন। সোমবার সকাল ৭টার দিকে মহাসড়কের বাউশিয়া লিংক রাস্তা নামের এলাকায় চট্টগ্রামমুখী একটি পিকআপভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ওই দুই পথচারীকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।

নিহত মোহন মিয়া গজারিয়া উপজেলার পুরান বাউশিয়া এলাকার মৃত. মহসিন মিয়ার ছেলে ও নুরুল ইসলাম কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম এলাকার মোকসেদ আলীর ছেলে। তারা স্থানীয় জমিতে কৃষি কাজ করতে রাস্তা পার হওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে ছিলেন বলে জানা গেছে।

গজারিয়া (ভবেরচর) হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সালাহ্ উদ্দিন দুর্ঘটনায় নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় ঘাতক চালক পালিয়ে গেলেও পিকআপভ্যানটি আটক করা হয়েছে। মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

দিনাজপুর: জেলার বীরগঞ্জে সঙ্গীদের সঙ্গে খেলার সময় বালু বোঝাই ট্রলির ধাক্কায় ফারজানা আক্তার নামে চার বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে। সোমবার দুপুরে বীরগঞ্জ উপজেলার ঝাড়বাড়ী এলাকায় আত্রাই নদীর জয়গঞ্জ ঘাটে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মতিন প্রধান জানান, দুপুরে জয়গঞ্জ ঘাটের পাশে কিছু শিশু একত্রে খেলা করছিল। এসময় নদী থেকে একটি বালুবাহী ট্রলি সড়কে উঠার সময় শিশুটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুটি প্রাণ হারায়। পরে স্থানীয়রা দুর্ঘটনায় নিহত শিশুর মরদেহ পরিবারের কাছে নিয়ে যায়।

বগুড়া: জেলার শিবগঞ্জে ভটভটি উল্টে আজিজার রহমান (৪০) নামে এক মাছ ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন ভটভটি চালক। সোমবার সকাল ৬টার দিকে উপজেলার কিচক নয়াপাড়া নামক স্থানে দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত আজিজার রহমান জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলার জিন্দাপুর ইউনিয়নের মাদারপুর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

জানা গেছে, আজিজার রহমান শ্যালো ইঞ্জিনচালিত ভটভটি যোগে মাছ নিয়ে বিক্রির উদ্দেশ্যে কিচক বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে মোকামতলা-জয়পুরহাট সড়কে কিচক সেতুর কাছে নয়াপাড়া গ্রামের রাস্তার সামনে ঘন কুয়াশার কারণে চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে ভটভটিটি খাদে উল্টে যায়। এসময় ভটভটির নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই আজিজার রহমানের মৃত্যু হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় পিকআপভ্যানের চাপায় মিনারা বেগম (৩৫) নামে এক স্বাস্থ্য সহকারী নিহত হয়েছেন। সোমবার বিকালে উপজেলা সদরের মাতুরবাড়ি মোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মিনারা উপজেলার কানাইনগর গ্রামের মুজিবুর রহমানের স্ত্রী।

বাঞ্ছারামপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) রাজু আহমেদ দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পিকআপভ্যান ও চালককে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পিকআপটি জব্দ করা হয়েছে।

বরিশাল: বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের গৌরনদীর উপজেলার আশোকাঠী ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় মোটরসাইকেল-টেম্পোর সংঘর্ষে আজিজুল হক (৩৫) নামের এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন।

গৌরনদী হাইওয়ে থানার এসআই মুজাম্মেল হক জানান, সোমবার দুপুর ১২টার দিকে মহাসড়কের আশোকাঠী ব্রিজের উত্তর পাশের মোটরসাইকেল-টেম্পোর সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেল চালক আজিজুল ও টেম্পো চালক গুরুতর আহত হন। স্বজনরা মোটরসাইকেল চালক আজিজুলকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। টেম্পোচালককে উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

নোয়াখালী: জেলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার নলচিরা-ওছখালী সড়কে চলন্ত মোটরসাইকেলের সামনে শিয়াল পড়ে দুর্ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী জামাল উদ্দিন (৬৫) নামে একজন ঘটনাস্থলে নিহত হন। এসময় আরও এক আরোহী আহত হয়েছেন।

সোমবার রাত পৌনে ৮টার দিকে আফাজিয়া বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত জামাল উদ্দিন হাতিয়া পৌরসভা ১নং ওয়ার্ডের আলী আহমদের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাতে জামাল উদ্দিনসহ দুইজন একটি মোটরসাইকেল যোগে স্থানীয় আফাজিয়া বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। তাদের মোটরসাইকেলটি নলচিরা-ওছখালী সড়কের আফাজিয়া বাজারের দক্ষিণ পাশে পৌঁছলে একটি শিয়াল হঠাৎ তাদের মোটরসাইকেলের সামনে পড়ে। এসময় শিয়ালের সঙ্গে ধাক্কা লেগে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলটি সড়কের পাশের গাছের সাথে গিয়ে আবার ধাক্কা লাগে। এতে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে জামাল উদ্দিন ঘটনাস্থলে নিহত হন। স্থানীয় লোকজন অপর আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা দিয়েছে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, চলন্ত মোটরসাইকেলের সামনে শিয়াল পড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে