কঠোর প্রতিশোধ নেবে ইরান: খামেনি

0
133

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে বলেছেন, ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের অভিজাত কুদস ফোর্সের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার কঠোর প্রতিশোধ নেবে ইরান। এ হত্যার নিন্দা করে ইরানের পক্ষ থেকে তিন দিনের শোক ঘোষণা করা হয়েছে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ যুক্তরাষ্ট্রের এ হামলাকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ বলে মন্তব্য করেছেন। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে তিনি বলেন, আমেরিকা তার দুর্বৃত্তপনা ও হঠকারিতার সব পরিণতির দায় বহন করবে। এ অঞ্চলসহ বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিরোধ ও পদক্ষেপ আরও শক্তিশালী হবে। জেনারেল সোলাইমানিকে গুপ্তহত্যাকারী মার্কিন সন্ত্রাসী সেনাদের নিষ্ঠুরতা ও বোকামি নিঃসন্দেহে অত্র অঞ্চল ও বিশ্বে প্রতিরোধের বৃক্ষকে আরও সমৃদ্ধ করবে।

আজ শুক্রবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের অভিজাত কুদস ফোর্সের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ইরাকে মার্কিন বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন। মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন এই তথ্য জানিয়ে বলেছে, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশেই সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়। শুক্রবার ভোরে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জেনারেল সোলাইমানির গাড়িবহর লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। এই হামলায় সোলাইমানিসহ বেশ কয়েকজন নিহত হন।

জেনারেলের মৃত্যু সংবাদ উপস্থাপনের সময় কালো পোশাক পরেন উপস্থাপনকারী। এতে সোলাইমানির কৃতিত্বের বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়।

ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই সোলাইমানিকে হত্যার ঘটনা ঘটল। গত মঙ্গলবার বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসে ইরান-সমর্থিত লোকজন সহিংস প্রতিবাদ জানায়।

আয়াতুল্লাহ খামেনির ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত সোলাইমানির হত্যাকাণ্ডের পর তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিরোধের প্রেরণা দ্বিগুণ বেড়ে যাবে। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, মহৎ এ যুদ্ধে যোদ্ধাদের জন্য নিশ্চিত জয় অপেক্ষা করছে। শত্রুদের জেনে রাখতে হবে, প্রতিরোধের জিহাদ আরও দ্বিগুণ প্রেরণায় চলতে থাকবে।

ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের সাবেক কমান্ডার মোহসেন রেজাই যুক্তরাষ্ট্রকে প্রতিশোধের আগুনে পুড়তে হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘শহীদ ভাইদের সঙ্গে যুক্ত হলেন সোলাইমানি। তবে আমরা যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ভয়ংকর প্রতিশোধ নেব।’

তেহরান থেকে আল জাজিরার এক প্রতিনিধি বলেছেন, দেশটি থেকে শক্তিশালী জবাব আসতে পারে। একটা বিষয় পরিষ্কার,, কোনো একসময় সামরিক জবাব আসতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে