ক্রিকেটারদের ফুটবল খেলা নিষিদ্ধ করল ইংল্যান্ড

0
100
ফাইল ছবি

অনুশীলনের আগে গা গরম করার জন্য ক্রিকেটাররা ফুটবল খেলেন নিয়মিত। বাংলাদেশ দলেই সাকিব-মুশফিকেরা বেশ গুরুত্ব নিয়ে খেলেন ফুটবল। ইংলিশ ক্রিকেট থেকে আসা এ অভ্যাস নিয়ে যদিও বেশ বিরক্তি প্রকাশ করতেন উপমহাদেশের ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। এতে গা গরমের চেয়ে নাকি চোটে পড়ার সম্ভাবনাই বেশি। ঠিক সেটা প্রমাণিত হচ্ছে এখন। আর এ কারণেই ইংল্যান্ড জাতীয় দলে ফুটবল খেলা নিষিদ্ধ করল বোর্ড।

কেপ টাউন টেস্টের আগে চোটে পড়েছেন ব্যাটসম্যান ররি বার্নস। অনুশীলনের আগে ফুটবল খেলতে গিয়ে লিগামেন্টে চোট পেয়েছেন বার্নস। ইংলিশ পুরুষ ক্রিকেটের পরিচালক অ্যাশলে জাইলস আগে থেকেই ফুটবল খেলার বিরোধী ছিলেন। ররি বার্নস চোটে পড়ার পর আর দেরি করেননি, দলের কোচ ক্রিস সিলভারউডের সঙ্গে কথা বলে অনুশীলনে ফুটবল খেলা নিষিদ্ধ করে দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার অনুশীলনে ফুটবল খেলার সময় বেকায়দায় পড়ে যান বার্নস। পরে দেখা গেছে গোড়ালিতে চোট পেয়েছেন, এবং পুরো সিরিজ থেকেই ছিটকে গেছেন বার্নস। সিরিজের আরও দুই ম্যাচের জন্য দলে আর মাত্র একজন বাড়তি ব্যাটসম্যান আছে ইংল্যান্ডের। এমন পরিস্থিতি দলের কর্তাব্যক্তিদের মাঝে তাই বিরক্তির জন্ম দিয়েছে। এর আগে ২০১৮ সালে জনি বেয়ারস্টোও ফুটবল খেলতে গিয়ে চোট পেয়েছিলেন শ্রীলঙ্কায়। জো ডেনলি ও জেমস অ্যান্ডারসনও ফুটবল খেলে গা গরম করতে গিয়ে চোটে পড়েছিলেন।

জাইলস দলের দায়িত্ব নিয়েই ফুটবল নিষিদ্ধ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু দলের অভিজ্ঞ খেলোয়াড়েরা বলেছিলেন, এটা দলের মাঝে বন্ধন সৃষ্টিতে ভালো কাজে দেয়। তাই বিশ্বকাপ পর্যন্ত ব্যাপারটি ভেবে দেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন জাইলস। বার্নসের চোটে জাইলসের সিদ্ধান্ত নেওয়া সহজ হয়ে গেছে। জাইলস এর আগে যখন ওয়ারউইকশায়ারের পরিচালক ছিলেন, সেখানেও ফুটবল খেলা নিষিদ্ধ করেছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট অবশ্য অনুশীলনের অংশ হিসেবে এটা নিষিদ্ধ করার পক্ষে ছিল না তখন। তখন বলা হয়েছিল, এটা প্রত্যেক কাউন্টি দলের নিজস্ব সিদ্ধান্ত।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে