জাতীয় পার্টিই হচ্ছে সরকারের একমাত্র বিকল্প শক্তি

0
82

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপি বলেছেন, জাতীয় পার্টিই হচ্ছে সরকারের একমাত্র বিকল্প শক্তি। দ্বিতীয় বিকল্প শক্তি হয়েও বিএনপি রাজনীতির মাঠে দাঁড়াতে পারছে না। নেতৃত্বহীনতায় দলটির নেতাকর্মীরা হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। তাদের আপোসহীন নেত্রী এমন আপোস করেই জেল থেকে বের হয়েছেন, যে তিনি দেশ ও মানুষের স্বার্থে একটি কথাও বলতে পারছেন না। তাদের আরেক নেতার প্রতি বিএনপির নেতাকর্মীদেরই আস্থা নেই। তাছাড়া দেশের মানুষও বিএনপির কাছে প্রত্যাশা করে না।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ মনে করে বঙ্গবন্ধু হত্যার সঙ্গে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জড়িত। আবার বিএনপির শাসনামলে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে এমন ধারণাও ক্ষমতাসীনদের। তাই রাজনীতির মাঠে বিএনপির টিকে থাকা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। উন্নয়ন ও সুশাসনের সঙ্গে দেশ পরিচালনার অভিজ্ঞতা নিয়ে জাতীয় পার্টি রাজনীতির মাঠে সক্রিয় আছে। পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলের গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহ্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে জাতীয় পার্টি। দেশের মানুষ এখন জাতীয় পার্টিকেই সরকারের বিকল্প শক্তি হিসেবে বিবেচনা করেন।

বুধবার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে জাতীয় পার্টি খুলনা মহানগর নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় পার্টি চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, প্রতিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টি মাঠে থাকবে। ভোটের ফলাফল যাই হোক, নির্বাচনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত জাতীয় পার্টি ভোটের মাঠ ছাড়বে না। দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে কোনো নেতাকর্মী অবস্থান নিলে সে আর জাতীয় পার্টি করতে পারবে না। জাতীয় পার্টি নির্বাচনে বিশ্বাসী একটি রাজনৈতিক শক্তি। জাতীয় পার্টি যতবার আওয়ামী লীগকে সমর্থন করেছে, ততবারই আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব পেয়েছে। তাই জাতীয় পার্টিকে বাদ দিয়ে কোনো রাজনৈতিক শক্তিই রাষ্ট্র পরিচালনার স্বপ্ন দেখতে পারবে না। এ সময় জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, দেশের মানুষ এখন আওয়ামী লীগ আর বিএনপির শাসনামল দেখতে চায় না। দেশের মানুষ ফিরে পেতে চায় পল্লীবন্ধুর শাসনামলের স্বর্ণালি যুগ। দেশের মানুষ ভোট দিতে চায় লাঙ্গলে, তারা জাতীয় পার্টিকে রাষ্ট্রক্ষমতায় দেখতে চায়। ডাবল এ-প্লাস পেয়ে জাতীয় পার্টি যখন রাজনীতির মাঠে, তখন অন্য দলগুলোর প্রতি সমর্থনের গ্রেড মাইনাস-সি। তিনি বলেন, দেশের মানুষ আর খুন, গুম, হত্যা, সন্ত্রাস দেখতে চায় না। দেশের মানুষ জাতীয় পার্টির মাধ্যমে সুশাসন, উন্নয়ন চায়।

সভায় বক্তব্য রাখেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, এটিইউ তাজ রহমান, রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, ভাইস চেয়ারম্যান শেখ আলমগীর হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, জহিরুল হক জহির। কেন্দ্রীয় নেতা ও জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির সভাপতি ইসাহাক ভুইয়া। এসএম আল যুবারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় নেতা হেলাল উদ্দিন, সৈয়দ মঞ্জুরুল হোসেন মঞ্জু, এমএ রাজ্জাক খান, মাহমুদ আলম, সমরেশ মণ্ডল মানিক।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে