জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে জিডি করেছেন লেখক সুজিত সরকার

0
83

নাটোর প্রতিনিধি:   নাটোর সদর আসনের সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিমুল সন্ত্রাসীদের দিয়ে হুমকি দিচ্ছে বলে রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সরকার সুজিত কুমার। গত ২৯ জুলাই জিডিটি বোয়ালিয়া থানায় করা হয়েছে। এতে লেখক তার এবং পরিবারের নিরাপত্তা চেয়েছেন।

লেখক সুজিত সরকারের জিডি কপি -০১

 

জিডিতে তিনি অভিযোগ করেন, ২০০৯ সালে তিনি “নাটোর জেলার ইতিহাস ঐতিহ্য ও মুক্তিযুদ্ধ ” নামে একটি বই লিখেন। এতে স্থানীয় ব্যক্তিদের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে রাজাকারের তালিকা লিখেন। এই তালিকায় নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ও সদর আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুলের পিতা হাসান আলী রাজাকার ছিলেন বলে নামটি লিখেন।

বইটি ২০১০সালে প্রথম সংস্করণ এবং ২০২১ সালের বইমেলায় দ্বিতীয় সংস্করণ প্রকাশিত হয়। উক্ত গ্রন্হে সাংসদ শিমুলের পিতার নাম একাত্তরের রাজাকার তালিকায় স্থান পেয়েছে। গ্রন্হের প্রথম প্রকাশের ৩১০পৃষ্ঠা, প্রথম সংস্করণের ৩৬১পৃষ্ঠায় এবং দ্বিতীয় সংস্করণের ৬০০পৃষ্ঠায় রাজাকার হাসান আলীর নাম মুদ্রিত হয়।

লেখক সুজিত সরকার তার জিডিতে উল্লেখ করেন, আমি মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ ও স্বাধীনতা বিরোধীদের নাম মাঠ পর্যায়ের ৩বছর যোগাযোগ করে নাটোর জেলার গ্রাম-গঞ্জে ঘুরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে সাক্ষাৎকার নিয়ে ছবি তুলে গ্রন্হে অসংখ্য সন্নিবেশ করেছি। সাক্ষাৎকারদাতারা যদি ভুল তথ্য দিয়ে থাকেন, সে বিষয়েও যাচাই-বাছাই করেছি। একাধিক সাক্ষাৎকার দাতা নাটোর কান্দিভিটা এলাকার হাসান আলী একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় একজন কুখ্যাত রাজাকার ছিল বলে তথ্য দিয়েছে। আমি তাদের প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী গ্রন্হ প্রকাশ করেছি।

 

লেখক সুজিত সরকারের জিডি কপি-০২

কিন্তু সম্প্রতি নাটোর জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের কমিটি নিয়ে নিজেদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারনে আমার গ্রন্হের কথা উল্লেখ করে বর্তমান সাংসদ শফিকুল ইসলাম শিমুলের পিতার স্বাধীনতা বিরোধী ভূমিকার কথা স্বরণ করিয়ে দেন। এতে সাংসদ শিমুল আমার বিরুদ্ধে কুৎসা রটিয়ে মিথ্যাচার করেছেন।

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে সাংসদ শফিকুল ইসলাম শিমুল তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে ড. সুজিত কুমারকে হুমকি দিচ্ছেন বলে জিডিতে উল্লেখ করা হয়। এতে পরিবার নিয়ে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন বলে জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া লেখক এবং তার পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন জানান। পরিবারের কারো ওপর আক্রমণ হলে সাংসদ শফিকুল ইসলাম শিমুল ও তার পেটোয়া বাহিনীর ওপর সমস্ত দায় চাপিয়ে দিতে বাধ্য হবো বলেও জিড়িতে উল্লেখ করেন তিনি।

জিডির তদন্ত কর্মকর্তা এসআই নাদিম উদ্দিন বলেন, তদন্ত করে হুমকির সত্যতা যাচাই করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এজন্য তিনি বাদী এবং বিবাদীসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলবেন। সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে