টাঙ্গাইলে হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

0
86

টাঙ্গাইলে হত্যা মামলায় ২১ বছর পর ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ঘটনায় আরও ৬ জনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে। এছাড়াও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ২০ হাজার টাকা করে আর্থিক জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়। বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সাউদ হাসান এ রায় দেন। যাবজ্জীবনের আসামিরা হচ্ছেন- সদর উপজেলার রশিদপুর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে আ. কাদেরমৃত ইনছান খাঁর ছেলে চান খাঁমৃত নুরু মণ্ডলের ছেলে শহীদনেদু হাজীর ছেলে ওয়াজেদমৃত জুরান মণ্ডলের ছেলে আবুল ও রূপচান। বেকসুর খালাসপ্রাপ্তরা হচ্ছেন– রশিদপুর গ্রামের নেদু হাজীর ছেলে সাইদমিন্টুসাধুনুরু মণ্ডলের ছেলে রহিজ উদ্দিনওসমান বেপারির ছেলে আজিজ ও ডুবাইল গ্রামের হামেদ আলীর ছেলে টেরু চান।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এস আকবর আলী খান জানান১৯৯৮ সালের ২২ নভেম্বর রোববার রাত ১০টায় পূর্বশত্রুতার জেরে সদর উপজেলার রশিদপুর গ্রামের মৃত মোঘল খাঁর ছেলে বাহাদুর খাঁকে চাপাতিসহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পর দিন নিহতের ভাই আব্দুল কুদ্দুস বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

১৯৯৯ সালের ৯ আগস্ট ১২ জনের নামে আদালতে চার্জশিট জমা দেয় পুলিশ। পরে বৃহস্পতিবার হত্যা মামলার ২১ বছর পর ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ঘটনায় আরও ৬ জনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে। এছাড়াও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ২০ হাজার টাকা করে আর্থিক জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে