দেলদুয়ারে সুদের টাকার চাপে স্বামীর ভিটে ছাড়া বিধবা

0
50
টাঙ্গাইল দেলদুয়ার উপজেলার সেহড়াতৈল গ্রামে সুদের  টাকা পরিশোধ করতে না পাড়ায় আনোয়ারা বেওয়ার একমাত্র মাথা গুজার ঠাই স্বামীর ৩ শতাংশ ভিটে ছেড়ে আশ্রয়ের জন্য বাড়ি-বাড়ি ঘুড়ছে।
আনোয়ারা বেওয়া জানান, অভাবের সংসারে ছেলেকে বিদেশ পাঠানোর জন্য প্রতিবেশী শাহাবুদ্দিনের ছেলে জাকিরের নিকট থেকে ১ লাখ টাকা সুদের মাধ্যমে নিয়ে ছেলে সুজনকে মালদ্বীপ পাঠাই,বিদেশে গিয়ে ছেলে অসুস্থ হলে চার মাস পর দেশে ফিরে আসে।সেই সুদের টাকা দেশে কাজ করে পরিশোধ করার আশ্বাস দিলেও প্রতিবেশী না মেনে আমাকে ও আমার ছেলেকে নানাভাবে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে এবং আমার যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাও বন্ধ করে দেয়।সম্প্রতি বন্যায় উপায়ন্তর না পেয়ে আমার ছেলে বউ সন্তানদের নিয়ে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি আশ্রয় নিলেও আমি একাকি বাড়িতে থাকি।
গলা পানি ভেঙ্গে পায়খানার পার্শ্ব চলাফেরা করতে হয় বিধায় আমি স্বামীর একমাত্র ভিটে ছেড়ে মানুষের বাড়ি,বাড়ি আশ্রয় খুজছি।কথাগুলো বলতে বলতে দুচোখের পানি অজরে ঝরছে আনোয়ারা বেওয়ার।এলাকাবাসী জানান,বিধবার ৩ শতাংশ জমির উপর নজর পড়ে শাহবুদ্দিনের তাই সুদের টাকা দিয়ে জমি টুকু নেয়ার পায়তারা দীর্ঘ দিনের।
এ বিষয়ে শাহাবুদ্দিন জানান সুদে আসলে এখন ২,৪৭,০০০ হাজার টাকা হয়েছে।এলাকাবাসী নিয়ে বসছিলাম সুদের টাকা বাধ দিয়ে ১,৩০,০০০টাকা দিয়ে দিমু বাড়ী আমার নামে লিখে দিবে।
এ ব্যাপারে দেলদুয়ার সদর ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের বাবলু বলেন,ঘটনার বিষয়ে অভিযোগ পেয়ে দুইপক্ষকে নোটিশ করেছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে