নওগাঁর আদিবাসী সম্প্রদায়ের নেচে-গেয়ে কারাম উৎসব উদযাপন

0
67

আদিবাসীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব কারাম পূজা। বংশ পরম্পরায় যুগ যুগ ধরে প্রতি বছর উত্তরের সমতল ভূমির আদিবাসীরা এই কারাম উৎসব পালন করে আসছেন।

বুধবার বিকেলে নওগাঁর মান্দা উপজেলার ভারশোঁ ইউনিয়নের কালিসফা কালী মন্দির মাঠে এ ঐতিহ্যবাহী কারাম উৎসব পালন করেছেন আদিবাসী সম্প্রদায়।জাতীয় আদিবাসী পরিষদ মান্দা উপজেলা শাখার আয়োজনে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত আদিবাসী সম্প্রদায়ের ৮টি নৃত্যের দল অংশ নেয়। কারাম উৎসবে তারা তাদের নিজেদের ভাষা, সাংস্কৃতি আর ঐতিহ্য তুলে ধরেন।

কারাম একটি গাছের নাম। আদিবাসী বিভিন্ন জাতি গোষ্ঠির মানুষের কাছে এটি একটি পবিত্র গাছ। মঙ্গলেরও প্রতীক। পূজার সময় আদিবাসী দুই ভাই ধর্মা ও কর্মার জীবনী তুলে ধরা হয়। তারা বিশ্বাস করেন ধর্ম পালন করায় ধর্মা রক্ষা পান সকল বিপদের হাত থেকে। আর কর্মা ধর্ম পালন না করায় তার ক্ষতি হয়।

কারামডাল অস্থায়ী মণ্ডপে পুঁতে রেখে পূজা-অর্চনা আর নাচ-গান ও কিচ্ছা বলার মধ্য দিয়ে প্রতি বছর কারাম উৎসব পালিত হয়।এ সময় পুরো এলাকা আদিবাসীসহ সকল সম্প্রদায়ের মানুষের মিলন মেলায় পরিণত হয়। পূজা শেষে পরদিন কারাম ডাল উঠিয়ে গ্রামের তরুণ-তরুণীসহ সব বয়সের নারী-পুরুষ নেচে গেয়ে গ্রামের বাড়ি বাড়ি ঘুরে পুকুরে জল বিসর্জন দেন।

আদিবাসীরা এ কারাম উৎসবের জন্য অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষায় থাকেন। এ উৎসবে আদিবাসী সম্প্রদায়ের সাংস্কৃতিক দল তাদের নাচ-গান পরিবেশন করেন।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ মান্দা উপজেলা শাখার যুগ্ম-আহ্বায়ক যোনা উরাওয়ের সঞ্চালনায় এ উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন মান্দা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং আওয়ামী লীগের সভাপতি মোল্লা এমদাদুল হক।

আরও উপস্থিত ছিলেন মান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ জহুরুল ইসলাম, দফতর সম্পাদক অনুপ কুমার মহন্ত, ভারশোঁ ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান সুমন, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সবিন মুন্ডা এবং সাংগঠনিক সম্পাদক নরেন পাহান প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে