নিউইয়র্কে করোনায় প্রথম বাংলাদেশি আক্রান্ত

0
199

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ড এলাকায় প্রথম কোনো বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে দেশটির লং আইল্যান্ডের পার্শ্ববর্তী হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন তিনি।

ওই ব্যক্তি নিউইয়র্কে আইটি (তথ্য প্রযুক্তি) পেশায় কর্মরত। আক্রান্তের পরিবারে আরও চার সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার শঙ্কায় আছেন।

আক্রান্তের বন্ধু ইউসুফ আহমেদ বলেন, তাদের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ আছে। আমরা সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করছি। রোগীর দেখাশোনা করছি। এর আগে, শুক্রবার নিউইয়র্ক শহরে করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত ৮০ বছর বয়সী এক নারীর মৃত্যু হয়।

করোনাভাইরাসে নিউইয়র্কে এটিই প্রথম মৃত্যু। তিনি হাপানি রোগে ভুগছিলেন। নিউইয়র্ক শহরের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুওমো ওই নারীর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে জানান, সম্প্রতি নিউইয়র্ক সিটি হাসপাতালে ওই নারীর শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন শুক্রবার (যুক্তরাষ্ট্রের সময়) অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে।

তবে করোনাভাইরাসে মৃত্যু হলেও তার দেহে আগে থেকে থাকা শ্বাসকষ্টজনিত রোগের লক্ষণ ছিল। ১২ মার্চ এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ৫ শতাধিক মানুষের সমাবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৬৬৫ জন আক্রান্ত হয়েছে।

এতে মৃত্যু হয়েছে ৫৬ জনের। রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রগুলো এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এদিকে যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত্রে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হলো ২১ জনের। আর এতে যুক্তরাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ১৪০। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, বিশ্বের ১২৩টি দেশের ১ লাখ ৫৬ হাজার ১৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৮১৯ জনে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে