প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখে তরুণী, ভিডিও ভাইরাল

0
92

রাজশাহী: নারী কিংবা পুরুষ প্রকাশ্যে ধূমপান সকলের জন্যই দণ্ডনীয় অপরাধ। তবে আইনের প্রয়োগ হতে সমবসময় দেখা যায় না। তবে রাষ্ট্রীয় আইনের পাশাপাশি সামাজিক ও ধর্মীয় বিধি-বিধানও প্রচলিত রয়েছে। যা সমাজে সর্বসময়ে কার্যকর ও কাক্সিক্ষত ফলাফল বয়ে আনে। সেই সামাজিক বিধি-বিধান উপেক্ষা করে নগরীর সিএন্ডবি মোড়ে সার্কিট হাউজের রাস্তার পাশে প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখে পড়েছেন এক তরুণী। রাজশাহী নগরীর সার্কিট হাউস এলাকায় রোববার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটেছে। এতে তাৎক্ষণিক প্রক্রিয়া সৃষ্টির সাথে সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। কেননা নগরবাসী এমন চিত্রের সাথে পরিচিত ছিলেন না।

সিএন্ডবি মোড়ের পদ্মার পাড়ের সৌন্দের্যে গড়ে ওঠা রাস্তায় স্বাভাবিকভাবেই বিভিন্ন মহলের মানুষ আসেন। এসময় মফস্বল এলাকায় নারীর ঠোঁটে সিগারেট দেখে স্থানীয় কিছু মুরব্বি ও তরুণ সমাজের কিছু ব্যক্তিবর্গ প্রতিবাদ জানান। এনিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া থাকলেও সামাজিক প্রতিবাদের যে রীতিটি হারিয়ে যেতে বসেছিলো তা ফিরে আসায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন অনেকেই। তবে মাদক, সন্ত্রাস, ছিনতাই ও উঠতি বয়সী তরুণ বখাটেপনার ক্ষেত্রে এভাবে প্রতিবাদী হয়ে উঠতে দেখা যায় না। এক্ষেত্রে সামাজিক প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী হলে অপরাধ অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, তাদের নাজেহাল করার উদ্দেশ্যে ওই ঘটনার ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে ছাড়া হয়নি বরং ওই মহিলা যেন থানায় গিয়ে মিথ্যে অভিযোগ তাদের হয়রানি না করতে পারেন সে কারণেই করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এই ভিডিওতে দেখা যায়, রাজশাহী সার্কিট হাউসের পাশের ফুটপাতে বসে ওই তরুণ-তরণী বসে ধূমপান করছিলেন। মেয়েটি শাড়ি ও ছেলেটি টিশার্ট-প্যান্ট পরা ছিলেন। তাদের দুজনের হাতেই সিগারেট ছিল। এ ঘটনা দেখে প্রথমে মাঝবয়সী এক ব্যক্তি তাদের সিগারেট ফেলে দিয়ে সেখান থেকে চলে যেতে বলেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে তর্কবিতর্ক শুরু হয়ে যায়। মুহূর্তেই সেখানে বেশ কিছু মানুষের জনসমারোহ ঘটে। সামাজিকভাবে দৃষ্টিকটু হওয়ায় সবাই একজোট হয়ে তরুণ-তরুণীকে ওই স্থান ত্যাগ করার জন্য চাপ দিতে থাকেন। তাদের মধ্যে থেকে এক ব্যক্তি এসে বিষয়টি মিটমাট করে দেয়ার চেষ্টা করেন। তিনি প্রথম থেকে আক্রমণকারী ব্যক্তিকে নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। তখন তাদের উভয়ে মধ্যে বিতর্ক শুরু হয়ে যায়। মেয়েটি বলেন, মেয়ে বলেই তাকে বাধা দেয়া হচ্ছে। একজন বলেন, এভাবে প্রকাশ্যে মেয়ে মানুষ ধূমপান করলে পাড়ার মেয়েরা নষ্ট হয়ে যাবে। মধ্যস্থতাকারী লোকটি তরুণ-তরুণীকে বোঝান, বুঝছেন না যে মেয়ে বলেই আপনদের উঠে যেতে বলছে। ভদ্রভাবে উঠে যেতে বলছি, আপনারা উঠে যান। পরবর্তীতে ওই তরুণ-তরুণী স্থান ত্যাগ করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে