প্রবীণ স্বাস্থ্য সেবা কর্মসূচি সম্পর্কিত সভা অনুষ্ঠিত

0
62
স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রবীণ স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ১২ নভেম্বর শুক্রবার সকালে রাজধানীর পান্থপথে মাদল রেষ্টুরেন্টে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাইদুর রহমানের সঞ্চালনায় এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ এম এ ফয়েজ, মুগদা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ আহমেদুল কবির, ঢাকা মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ আসাদুল কবির চপল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর আলম, মাদল গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা মাসুমা খাতুন শাম্মী ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদি মাসুদ, মসজিদ-উদ তাকওয়া সোসাইটি ধানমন্ডি-এর খতীব মুফতি সাইফুল ইসলাম, এম আর খান শিশু হাসপাতালের অধ্যাপক ডাঃ ফরহাদ মনজুর, সমাজ সেবক মিসেস নুসরাত ফারহানা, সোনালী ব্যাংকের ডিজিএম মিসেস শরমিন জাহান, সেভ দি চিলড্রেন এর ডা; লীমা কবির, ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. ফারহানা রিজওয়ান, চলনবিল প্রবাহ পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদুল হক খোকন, ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির ডেপুটি রেজিস্টার এস এম মহিউদ্দিন প্রমুখ। সভার শুরুতে মুগদা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ আহমেদুল কবির স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ লাভ করায় ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। আলোচনায় অংশগ্রহণ করে বক্তারা বলেন খুবজীপুর ইউনিয়ন প্রবীণ স্বাস্থ্য সেবা কর্মসূচি একটা রোল মডেল হিসেবে কাজ করছে। কর্মসূচির আওতায় প্রতিটি গ্রামের নিজস্ব আয়ে খুবজীপুর ইউনিয়নের ৯ টি গ্রামের অতি প্রবীণ, অতি দরিদ্র এবং অতি অসুস্থ ব্যক্তিদের মেডিসিনসহ স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হচ্ছে। তাদেরকে স্বাস্থ্য কার্ড প্রদান করা হয়েছে। প্রয়োজন অনুযায়ী ছানি অপারেশন করা হয়েছে। ষাটোর্ধ সকল মানুষকে ভ্যাক্সিন দেয়া হয়েছে। ঢাকাস্থ এ এম জেড হাসপাতালের সাথে ভিডিও কনফারেন্সিং সিস্টেমে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সেবা প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। জানুয়ারি ২০২২ থেকে স্বচ্ছল, অসুস্থ প্রবীণদের হেলথ্ কার্ড প্রদানের বিষয় অবহিত করা হয়। সভায় প্রবীণ জনগোষ্ঠীর নানা সমস্যার বিষয় আলোচিত হয়। তাদের বার্ধক্যজনিত শারীরিক সমস্যার পাশাপাশি মানসিক সমস্যা রয়েছে। অনেকের আর্থিক সমস্যা রয়েছে। সভায় সকল সক্ষম, স্বচ্ছল ব্যক্তিকে অসচ্ছল, অসুস্থ প্রবীণদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অনুরোধ করা হয়। সভায় খুবজীপুর মডেলে ঢাকায় সীমিত আকারে প্রবীণ স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচি শুরু করার বিষয়ে মতামত ব্যক্ত করা হয়। মাদল গ্রুপ এ কাজের জন্য জায়গা দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে। বিস্তারিত আলোচনান্তে গঠনতান্ত্রিক ভাবে সরকারি কর্মসূচির সাথে সমন্বয় করে প্রবীণ স্বাস্থ্য কর্মসূচি চালানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে