ব্যাংকার শেখ মওদুদ হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

0
119

ফাত্তাহ তানভীর রানা :   নিহত সহকর্মীর বর্বোরোচিত হত্যার বিচারের দাবিতে অগ্রণী ব্যাংক অফিসার সমিতি, কেন্দ্রীয় পরিষদ আয়োজিত অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড, প্রধান কার্যালয়ের সামনে মানবন্ধনে ২৩/০২/২০২১ তারিখ উক্ত ব্যাংক কর্মকর্তারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। রাজধানীর দিলকুশার হোটেল পূর্বাণী থেকে বিসিআইসি ভবন পর্যন্ত মানববন্ধনে শুধু অগ্রণী ব্যাংকের কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন না, একাত্মতা ঘোষণা করে অন্যান্য ব্যাংক কর্মকর্তাও উপস্থিত ছিলেন। বিকেল চারটায় কয়েক মিনিটের জন্য শত শত ব্যাংকাররা এক হয়ে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড, হরিপুর গ্যাস ফিল্ড শাখার অফিসার (ক্যাশ) হিসেবে কর্মরত শেখ মওদুদ আহমেদ হত্যার বিচার চেয়েছেন। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় মহাব্যবস্থাপক আখতারুল আলম, অগ্রণী ব্যাংক অফিসার সমিতি কেন্দ্রীয় পরিষদের সভাপতি মোঃ নাজমুল হুদা রবিন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোবারক হোসেন, মাহমুদুল হাসান সবুজ, মোস্তফা কামাল, মারুফ জামান কল্লোল, জাকির হোসেন, জুয়েলসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন। উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা নিহত অফিসারের খুনিদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী জানান। নিহত শেখ মওদুদ সিলেট নগরীর রাজারগলির একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। তাঁর  গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলার টেংগুরিপাড়া গ্রামে। করোনার সংকটাপন্ন সময়ে ব্যাংকাররা সম্মুখযোদ্ধা হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এমন সময় একজন ব্যাংকারকে পিটিয়ে হত্যা করা আমাদের মানবিকতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে বলে বক্তারা মনে করেন।

উল্লেখ্য, জৈন্তাপুর উপজেলার হরিপুর থেকে গত ২০/০২/২০২১ তারিখ, শনিবার বিকালে একটি সিএনজি অটোরিকশায় নগরীর বন্দরবাজারে আসেন অগ্রণী ব্যাংক কর্মকর্তা শেখ মওদুদ আহমেদ। ভাড়া নিয়ে সিএনজি চালকের সাথে বাকবিতণ্ডা হয় মওদুদের। একপর্যায়ে সিএনজি-অটোরিকশা চালকরা শেখ মওদুদ আহমেদকে বেধড়ক মারধর করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। পরবর্তীতে তাকে  সিলেট  এমএজি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

 

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে