বড়াইগ্রামে ভাইয়ের বিরুদ্ধে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ

0
26
বড়াইগ্রাম প্রতিনিধিঃ নাটোরের বড়াইগ্রামে ক্রয়কৃত জমিতে বাঁশ কাটতে গিয়ে আব্দুল কাদের (৫০) নামের এক ব্যাক্তিকে লোহার রড ও জিআই পাইপ দিয়ে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। এসময় তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে আহত হয়েছে তার ছেলে ও স্ত্রী। বুধবার সকাল ৬টার দিকে উপজেলার জোয়াড়ী ইউনিয়নের খোর্দ্দ কাচুটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যাক্তি উপজেলার মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র। আহত অবস্থায় তিন জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার আব্দুল কাদেরের ছেলে আলমগির হোসেন বাদী হয়ে বড়াইগ্রাম থানা অভিযোগ দায়ের করেছেন।
আব্দুল কাদের জানান, খোর্দ্দ কাচুটিয়া পরিত্যাক্ত পুলিশ বক্সের সাথে খালের পাশে তার মুদি দোকান আছে। সেখানে আমার ভাই আব্দুল বারেক জমি বিক্রয় করে আরেক ভাই আব্দুল করিমের কাছে। আমি আব্দুল করিমের নিকট থেকে ক্রয় করে প্রায় বিশ বছর যাবৎ ভোগ দখল করে আসছি।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, দোকানের পাশের খাল খননের মাটি রাখার ব্যবস্থা করার লক্ষ্যে কিছুদিন আগে গাছ ও বাঁশ বিক্রয় করে আব্দুল কাদের। বুধবার সকালে বেপারী বাঁশ কাটতে গেলে আব্দুল কাদের ভাই খোর্দ্দকাচুটিয়া গ্রামের  আনোয়ার হোসেন (৬০) ভাতিজা ও আনোয়ার হোসেনের ছেলে শামীম হোসেন (৩০), শাহিন হোসেন (৩৪), রামাগাড়ী গ্রামের আরো দুই আব্দুল বারেক (৪৫), মুজিবুর রহমান (৩৮) বাঁশ কাটতে নিষেধ করে। পরে তারা আব্দুল কাদের দোকানে এসে তাকে লোহার রড ও জিআই পাইপ দিয়ে এলোপাথারি ভাবে মারপিট করে। তাকে উদ্ধার করতে স্ত্রী আলোকী বেগম (৪৫) ও ছেলে আলমগীর হোসেন (২২) এগিয়ে আসলে তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। এসময় দোকানে থাকা ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকাসহ দোকান লুটপাট করা হয়।
শাহিন হোসেন বলেন, আমার চাচা দাদার অনেক জায়গা রেজিষ্ট্রি করে নিয়েছে। এই জমিতে আমার বাবা চাচাদের ওয়ারিশ আছে। কিছু দিন আগে গাছ ও বাঁশ বিক্রয় করেছে। বুধবার ব্যা্পারীর কাছে সব বাঁশ বিক্রয় করলে আমি বাধা দিই। আমাকে চর মারলে আমার বাবার সাথে মারপিট হয়। আমাকে ও বাবাকে ইট দিয়ে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। আমরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছি।
বড়াইগ্রাম থানার পরিদর্শক আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে