ভারতকে কোথায় থামাবে বাংলাদেশ

0
121

যশস্বী জয়সোয়াল একাই লড়ে যাচ্ছিলেন একদিক ধরে রেখে। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের আঁটসাঁট বোলিংয়ের মধ্যেও তিনি খেলেছেন নিজের খেলাটাই। এবারের যুব বিশ্বকাপে ভারতের সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান তিনি। ব্যক্তিগত ৮৮ রানে তাঁকে তানজিদ হাসানের ক্যাচ বানিয়ে ফিরিয়েছেন শরিফুল ইসলাম। শরিফ অবশ্য সেখানেই থামেননি। পরের বলেই এলবিডব্লু ফাঁদে ফেলেছেন সিদ্ধেষ বীরকে। ৪০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৬৫ রান তোলা ভারতকে কততে থামাতে পারবেন যুবারা—প্রশ্ন এখন এটিই।

যশস্বী জয়সোয়াল ফিরেছেন ১২১ বলে ৮৮ রান করে। ভারতের পক্ষে দ্বিতীয় সেরা সংগ্রহ তিলক ভার্মা। তিনি ৬৫ বলে করেছেন ৩৮। জয়সোয়াল বড় হুমকি হয়ে ছিলেন বাংলাদেশের সামনে। শরিফুল তাঁকে ফিরিয়ে এনে দিয়েছেন স্বস্তি।

বোলিংটা আজ দুর্দান্ত করছেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ব্যাটসম্যানরা। শরিফুল ইসলাম শুরু করেছিলেন। তানজীম হাসান সাকিব, অভিষেক দাস, রকিবুল হাসান, শামীম হোসেন—সবাই ছিলেন দারুণ। ৩৬ ওভারে ১৫১ বলে কোনো রান দেননি বাংলাদেশের বোলাররা। এবারের যুব বিশ্বকাপের সবচেয়ে সেরা ব্যাটিং লাইনআপকে ২১ ওভার কোনো রান করতে না দেওয়া কিন্তু সহজ কোনো বিষয় নয়। বোলিংয়ের সঙ্গে ফিল্ডিংটাও হচ্ছে দুর্দান্ত। ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা সত্যিকার অর্থে সুযোগই পাননি হাত খুলে খেলার।

চূড়ান্ত সাফল্য পেতে শেষ ধাপ জয় করা এখনো বাকি। হোক না ছোটদের বিশ্বকাপ, তবু তো ফাইনাল! আর এ ফাইনাল জিতলে তো বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন! তখন শিরোপায় অনূর্ধ্ব-১৯ লেখাটা হবে বড়দের বিশ্বকাপ জয়ের প্রেরণা। কাজ এখনো অনেক বাকি। যুবারা কি পারবেন শেষ ভালোটা নিশ্চিত করে দেশকে আনন্দে ভাসাতে!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে