ভারতে ধর্ষণ-হত্যায় সন্দেহভাজন চার ব্যক্তিই পুলিশের গুলিতে নিহত

0
100
ছবি: আইএএনএস

ভারতের তেলেঙ্গানার রাজধানী হায়দরাবাদে তরুণী পশুচিকিৎসককে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় সন্দেহভাজন চার ব্যক্তি পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

গত বুধবার রাতে হায়দরাবাদে ২৭ বছরের ওই তরুণীকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। ঘটনার বীভৎসতায় ফুঁসে উঠেছে গোটা ভারত। চলছে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চারজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাঁরা পুলিশের হেফাজতে ছিল। পুলিশ তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করছিল।

গ্রেপ্তার চার সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে আজ ভোরে অপরাধের ঘটনাস্থলে নিয়ে যায় পুলিশ।

পুলিশের ভাষ্য, ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর সন্দেহভাজন ব্যক্তিরা পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। তাঁরা পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় পুলিশ গুলি ছোড়ে। এতে চার সন্দেহভাজন নিহত হন। এ ঘটনায় পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়েছেন।

তেলেঙ্গানার ওই তরুণীর ধর্ষক-হত্যাকারীদের পিটিয়ে মেরে ফেলা উচিত বলে ভারতের পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় মন্তব্য করেন সমাজবাদী পার্টির সদস্য জয়া বচ্চন।

ভারতীয় পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভায়ও এই ঘটনা নিয়ে আলোচনা হয়। উভয় কক্ষেই দলমত-নির্বিশেষে সবাই দোষী ব্যক্তিদের দ্রুত কঠোর শাস্তি দেওয়ার দাবি জানান। এই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে লোকসভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ঘটনার নিন্দা জানানোর ভাষা নেই।

সবশেষ সরকারি হিসাব অনুযায়ী, ভারতে ২০১৭ সালে ৩৩ হাজারের বেশি নারী ও শিশুকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ভুক্তভোগীদের মধ্যে ১০ হাজারের বেশি শিশু।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে