রাজনীতিতে আমি কাউকে প্রতিহিংসা করিনা – সিংড়ার মেয়র ফেরদৌস

0
67

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিংড়া:
নাটোরের সিংড়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস বলেছেন, আমার নেতা রাজনৈতিক অভিভাবক প্রতিমন্ত্রী এ্যাড জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি মহোদয় প্রায়ই বলেন রাজনীতিতে প্রতিযোগিতা থাকবে প্রতিদ্বন্দীতা থাকবে কিন্তু কোন প্রতিহিংসা থাকবেনা। আমি আমার নেতার সেই পথ অনুসরণ করে রাজনীতিতে কাউকে প্রতিহিংসা করিনা।

সিংড়া পৌরসভার ১নং ওর্য়াড আওয়ামী লীগের আয়োজনে মঙ্গলবার রাত ৮টায় কাটাপুকুরিয়া মহল্লায় আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথা গুলো বলেন। পৌর মেয়র বলেন, ২০১৫ সালে আপনাদের ভোটে আমি মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। নতুন মেয়র হিসাবে আমাকে বিভিন্ন দাপ্তরিক কাজ বুঝতে দুই থেকে আড়াই বছর সময় লেগে গেছে। বাকি আড়াই বছর থেকে পৌরসভার উন্নয়নের কাজ করতে পেরেছি। তাই আমাকে আবারও আপনারা র্নিবাচিত করলে খুব সহজেই উন্নয়ন হবে। নতুন কেউ এলে আমার মত আড়াই বছর সময় নষ্ট হবে।

মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী ৭/৮জন। সকলেই দল করে। স্বপ্ন দেখে। কেউ মেয়র হবেন। কেউ কমিশনার হবেন। আবার কেউ উপজেলা চেয়ারম্যান হবেন এটাই স্বাভাবিক। আমার চেয়ে আপনারা অনেক যোগ্য প্রার্থী এটা আমি স্বীকার করি। জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি নৌকা আমাকে দেয় আপনাদের কি নৌকার ভোট করা লাগবেনা। তাহলে আমাকে নিয়ে আপনারা এতো বদনাম করেন কেন। আমিতো নিজেই বলি আমি মুর্খ। আমি নিজেই বলি রাস্তা থেকে তুলে এনে পৌরবাসী আমাকে মেয়র বানিয়েছে। আমার দুর্বলতা আমার শিকড় তো আমি ভুলে যাইনি। পৌরবাসীর উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, আপনাদের কাছে অনেকে বলতে পারে আপনাদের মেয়রের ভাষা খারাপ। এটা আমিও স্বীকার করি আমার ভাষা খারাপ। যারা মানুষের হক ভোগ করে মানুষের ক্ষতি করে, জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুদান আত্মসাৎ করে আমি তার সঙ্গে ভাষা খারাপ করি। ন্যায়ের শাসন প্রতিষ্ঠায় আমি খারাপ মানুষদের সাথে ভাষা খারাপ করি।

মেয়র ফেরদৌস বলেন, পৌরবাসীর বিপদে আপদে যেভাবে পাশে ছিলাম আমি আবারও সেই ভাবে পাশে থাকতে চাই। মহামারী করোনাকালীন সময়ে আমার পরিবার বলেছিল তুমি কেন এতো ঝুকি নিচ্ছ? তোমার পরিবার নাই? আমি বলেছিলাম সিংড়া পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডের মানুষই আমার পরিবার।

১নং ওর্য়াড আওয়ামী লীগের সভাপতি রামপ্রসাদ দাসের সভাপতিত্বে উঠান বৈঠকে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাড জিল্লুর রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মাহাবুব আলম বাবু, পৌর যুবলীগের সভাপতি সোহেল তালুকদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খালিদ হাসান, স্থানীয় ওর্য়াড কমিশনার দেদার হায়াত বেনু, ২নং ডাহিয়া ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল মজিদ মামুন প্রমূখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে