শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজে ভাড়ায় যন্ত্রপাতি

0
43

নিজস্ব প্রতিবেদক : নিয়ম লঙ্ঘনের দায়ে কিছুদিন আগে শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করে দেয়া হয়। শুধু তাই না, কলেজটির ভর্তিসহ সব প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়। এ ঘটনার পরে কলেজ কর্তৃপক্ষ নানানভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন পুনরায় অনুমতির জন্য।

শনিবার কলেজটি পরিদর্শনে সময় নির্ধারণ আছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কলেজটি পরিদর্শনের জন্য ইতোমধ্যেই রাজশাহী মহানগরীতে অবস্থান করছেন। পরিদর্শনের ফলাফল পক্ষে নেয়ার জন্য ভাড়ায় যন্ত্রপাতি নিয়ে স্থাপনের চেষ্টা করছিলেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার্থীরা সেটার ছবি ধারণ করতে গিয়েই এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলার শিকার শিক্ষার্থীরা জানান, শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজে তেমন কোন যন্ত্রপাতি নেই। পরিদর্শকদের সন্তুষ্ট করতে যে যন্ত্রপাতি প্রয়োজন তা নেই। শনিবার এ কলেজ পরিদর্শন হবে বলে দিন নির্ধারণ হয়। পরিদর্শনটি টিমটি শুক্রবার রাজশাহী এসে পৌঁচেছেন। পরিদর্শন পক্ষে নিতেই শুক্রবার কলেজ কর্তৃপক্ষ ভাড়ায় যন্ত্রপাতি নিয়ে আসতে থাকে। কিন্তু শিক্ষার্থীরা তা জানতে পারেন। শুধু শিক্ষার্থীরা নয়, ওই এলাকার আশেপাশের লোকজনও বিষয়টি দেখেছেন।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, পরিদর্শন শেষ হয়ে গেলেই যন্ত্রপাতিগুলো আবার ফেরত পাঠানো হবে। পরিদর্শকদের ধোকা দিতেই কর্তৃপক্ষ এ কাজ করছেন। শিক্ষার্থীদের একটি দল ভাড়ায় আনা যন্ত্রপাতির ছবি তোলার জন্য কলেজে গিয়ে উপস্থিত হন। এতেই শিক্ষার্থীরা ক্ষোভের মুখে পড়েন। কলেজ কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের মারপিট করেন ও তাদের সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোনগুলো কেড়ে নেয়।

তবে, রাজশাহীর শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনিরুজ্জামান স্বাধীন বলেন, শনিবার একটি ভিজিট রয়েছে। সেই ভিজিট পণ্ড করার জন্য ছাত্রছাত্রীরা একত্র হয়ে কলেজে প্রবেশ করে। কলেজে প্রবেশে বাধা দিলে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে বুঝিয়ে বাড়িতে পাঠানো হয়।

আরএমপির চন্দ্রিমা থানার ওসি সিরাজুম মনির বলেন, মেডিকেল কলেজে মারামারি খবর শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। থানায় অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে