সিংড়ায় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে মেয়র প্রার্থীরা, দিচ্ছেন নানান প্রতিশ্রুতি

0
113

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিংড়া:
আসছে ২৮ শে ডিসেম্বর প্রথম ধাপে দেশের ২৫টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।
প্রতিবার প্রথম ধাপে নাটোরের সিংড়া পৌরসভার নির্বাচন হলেও এবার হচ্ছে না। তবে দ্বিতীয় ধাপে হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সিংড়া পৌরসভার সম্ভাব্য প্রার্থীরা ইতোমধ্যেই মাঠে নেমে পড়েছেন। আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও স্বতন্ত্র মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা মাঠ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। বর্তমানে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মানা বাধ্যতামূলক বিধায় প্রকাশ্যে সভা-সমাবেশ করতে না পারলেও  চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচার প্রচারণা। পোষ্টার-বিলবোর্ডে ছেয়ে গেছে পাড়া-মহল্লা।

আসন্ন সিংড়া পৌরসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির একাধিক প্রার্থী দেখা গেলেও জাতীয় পার্টি, জামায়াত বা অন্য কোন দলের তেমন কাউকে দেখা যাচ্ছে না।
সূত্রে জানা যায়, জামায়াতে ইসলামী, জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি এবং ইসলামী আন্দোলনের কোন প্রার্থী সিংড়া পৌর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে না।

সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীরা নিজ নিজ দলীয় মনোনয়ন পেতে তদবীর শুরু করেছেন। দলীয় মনোনয়ন পেতে স্থানীয়, জেলা ও কেন্দ্রীয় সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন মেয়র প্রার্থীরা।

আসন্ন সিংড়া পৌরসভা নির্বাচনে বর্তমান মেয়র ও পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস, উপজেলা পরিষদের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান কামরান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ আবু বকর সিদ্দিক রকি, পৌর আ’লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু, পৌর আ’লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সাবেক প্যানেল মেয়র আদনান মাহমুদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মহিউদ্দিন টিপু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক গোলাম কবির, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড সংসদের কমান্ডার আব্দুল ওয়াদুদ দুদু দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। ভোটারদের দ্বারেদ্বারে যাচ্ছেন, দিচ্ছেন নানান প্রতিশ্রুতি। উল্লেখিত সবাই আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চাইবেন।

অপরদিকে মেয়র পদে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে পৌর বিএনপির সদস্য সচিব তায়েজুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক সাখাওয়াত হোসেন সাখা, যুগ্ম আহ্বায়ক মহিদুল ইসলাম, অপর যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ আল-কাফি, উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি আতিকুর রহমান লিটন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাবেক সভাপতি শফিকুল ইসলাম জুইস। তবে বিএনপির কোন প্রার্থীকে মাঠে প্রচারণায় দেখা যায়নি। পোষ্টার-বিলবোর্ডে প্রার্থীতা জানান দিতে ব্যস্ত তারা।

সিংড়া পৌরসভা প্রতিষ্ঠা পায় ১৯৯৯ সালের ১০ জানুয়ারী। পৌরসভা গঠনের পর নির্বাচনে জয়ী হয় বিএনপি নেতা শামিম আল রাজি মু. সিহানুর রহমান। এরপর সীমানা সংক্রান্ত মামলায় ১০ বছর পর নির্বাচনে আবারও জয়ী হন তিনি। সর্বশেষ ২০১৫ সালের নির্বাচনে বর্তমান মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস নৌকা প্রতীকে ১৪ হাজার ৫৯৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বদ্নী বিএনপির প্রার্থী শামিম আল রাজি ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছিলেন ৪ হাজার ২৪৭ ভোট।

উপজেলা আ’লীগের সভাপতি এড. ওহিদুর রহমান শেখ বলেন, কেন্দ্রীয় সংগঠন প্রার্থীদের ব্যাপারে চিঠি প্রেরণ করলে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম পাঠানো হবে এবং কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ড মেয়র প্রার্থীর নাম ঘোষণা করবে। তবে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক এড. মজিবুর রহমান মন্টু বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্দেশনা রয়েছে। জেলা বিএনপির সাথে আলোচনা করে প্রার্থী মনোনীত করা হবে।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে