১৫ দিনের কোয়ারেন্টাইনে পুরো স্পেন, জরুরি অবস্থা জারি

0
136

মহামারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বিশ্বের ১৫২ টি দেশ। বাদ যায়নি ইউরোপের দেশ স্পেনও। চীন ও ইতালির পর সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় রয়েছে স্পেনের নাম।

স্পেনে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এক দিনে ১ হাজার ৫০০ জন ছাড়িয়েছে। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৯১ জনে। এরই মধ্যে মারা গেছে ১৯৬ জন।

এ কারণে শনিবার (১৪ মার্চ) থেকে দেশটিতে ১৫ দিনের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। ফলে দেশটির ৪ কোটি ৭০ লাখ মানুষকে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। খাবার, ওষুধ ও জরুরি জিনিসপত্র ছাড়া কোন কারণে বাইরে বের হওয়া যাবে না।

এ বিষয়ে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে বলেন, আমরা শীঘ্রই কাজে ফিরে যাবো। তবে সময় আসার আগ পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।

এদিকে, রোববার (১৫ মার্চ) পর্যন্ত এই ভাইরাসে সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৮৩৬ জন। পরিসংখ্যান ভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ডোমিটারস জানাচ্ছে, এখন পর্যন্ত ১৫২ টি দেশের ১ লাখ ৫৬ হাজার ৫৯০ জন মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭৫ হাজার ৯২৪ জন।

এই ওয়েবসাইটটি জানাচ্ছে, বর্তমানে এ ভাইরাসে আক্রান্ত ৬৯ হাজার ১৭৮ জন মানুষ চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে ৫ হাজার ৬৫২ জনের অবস্থা সঙ্কাটাপন্ন আর ৬৯ হাজার ১৭৮ জনের অবস্থা স্থিতিশীল।

ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি চীনে। দেশটিতে ৮০ হাজার ৮৪৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে মারা গেছেন ৩ হাজার ১৯৯ জন।

মৃত্যুর দিক দিয়ে চীনের পরেই আছে ইতালি। দেশটিতে ১ হাজার ৪৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়া ইরানে ১২ হাজার ৭২৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন ৬১১ জন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে